আজ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

ছাত্রলীগ শুনেই ক্ষেপে যান ওসি! থানায় ডেকে করা হয় নির্যাতন। ওসির বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন

আশরাফুল হক, লালমনিরহাট।

ছাত্রলীগ করার কথা শুনেই ক্ষেপে যান ওসি! থানায় ডেকে ছাত্রলীগের ওই কর্মীকে অকথ্য ভাষায় করা হয় গালাগাল করা হয় অমানুষিক নির্যাতন।

কীর্তিমান ওসির অপমানজনক ব্যবহারের বিচার না হলে আত্মহত্যা করবেন বলে হুমকী দিয়েছে নির্যাতিত ওই ছাত্রলীগ নেতা। ঘটনাটি লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে।

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ থানার ওসি গোলাম রসুলের বিরুদ্ধে মিজানুর রহমান নামে ছাত্রলীগের এক কর্মীকে নির্যাতনের এমন অভিযোগ এনে বিচার দাবি করে সংবাদ সম্মেলন করেছে ছাত্রলীগ নেতারা।

শনিবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাতে এক সংবাদ সম্মেলন করে ওসি’র নির্যাতনের বর্ণনা দিয়ে বিচার দাবি করে কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ।

সংবাদ সম্মেলনে জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রীর ভাতিজা আহম্মেদ মেলভিন কালীগঞ্জ থানার ওসি গোলাম রসুলের ডোপ টেস্টের দাবি জানান।

সংবাদ সম্মেলনে লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক আহম্মেদ মেলভিন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে কালীগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি নেই। তাই আমি জাতীয় শোক দিবসে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করি।

ওই অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন মিজানুর রহমানসহ শত শত ছাত্রলীগের নেতাকর্মী। এতে কতিপয় নেতা ক্ষিপ্ত হয়ে হয়তো বা ওসি গোলাম রসুলকে দিয়ে ছাত্রলীগ কর্মী মিজানুর রহমানকে বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে থানায় আটকিয়ে রেখে অমানুষিক নির্যাতন করেন।
তাকে মাদক মামলায় ফাঁসানোর হুমকিও দেন ওসি।

সংবাদ সম্মেলনে নির্যাতিত ছাত্রলীগ কর্মী মিজানুর রহমান বলেন, আমাকে বাড়ি থেকে ডেকে এনে থানায় আটকিয়ে রেখে নিযার্তন করেছেন ওসি গোলাম রসুল। ‘ছাত্রলীগ করা নাকি আমার পাছার ভেতরে ঢুকে দেবে। ’ প্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে কটাক্ষ করে খুবই খারাপ মন্তব্য করে গালমন্দ করেন ওসি। তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ করায় নির্যাতনের খড়গ আরও বাড়িয়ে দিয়েছিল।

সংবাদ সম্মেলনে ওই ছাত্রলীগ কর্মী বলেন, যদি আমার নির্যাতনের জন্য ওসি গোলাম রসুলের বিচার না হয়। তাহলে বলবো ছাত্রলীগ করা কি আমার অপরাধ ? আমি ঘোষণা দিচ্ছি যদি ওসি’র বিচার না হয় আমি আত্মহত্যা করবো। আমার মৃত্যুর জন্য ছাত্রলীগ দায়ী থাকবে।

ছাত্রলীগ করার জন্যই ওসি’র নির্যাতনের শিকার হয়েছি। বঙ্গবন্ধুর সংগঠন ছাত্রলীগ নিয়ে যে ওসি বাজে মন্তব্য করেছে, তার বিচার হতেই হবে।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ওসি গোলাম রসুলের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ করেনি।

লালমনিরহাট জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আরিফ ইসলাম বলেন, ছাত্রলীগ কর্মীকে নির্যাতনের বিষয়টি আমরা শুনেছি। তদন্ত করে কেন্দ্রীয় ও জেলার নেতাদের সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...