আজ ২৯শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ, ১২ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নীলফামারীতে দোকানদারের ভুল পরামর্শে কৃষকের ঘাসের বদলে পুড়েছে পাট

 

নীলফামারী প্রতিনিধিঃ

নীলফামারী সদর উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়নের বালাপাড়া গ্রামের কৃষক নির্মল চন্দ্র রায়ের পাট ক্ষেতের আগাছা দমনের জন্য বিষ প্রয়োগ করেন। মিমপেক্স কোম্পানির কিউলোপ বিষ স্প্রে করে ঘাসের বদলে পুড়েছে পাট। ক্ষেতে পাট গাছ জীবিত না থাকলেও ঘাসে ভরে গেছে। এমন অভিযোগ করে প্রতিকার দাবি করলেন ক্ষতিগ্রস্থ ওই কৃষক। নীলফামারী সদর উপজেলার বালাপাড়া গ্রামের নরেন্দ্র নাথ রায়ের ছেলে নির্মল চন্দ্র রায় মাঠে ২৫ শতাংশ পাটের জমিতে এবার পাট আবাদ করেছিলেন। পাট গাছ গজানোর পর থেকেই জমিতে ভাদালি ঘাস দেখা দেয়।

রামগঞ্জ বাজারে অবস্থিত কিটনাশক ব্যবসায়ী রবিউল বীজ ভান্ডার স্বত্বাধিকারী মোঃ রবিউল ইসলাম মিমপেক্স কোম্পানির কিউলেপ বিষ ব্যবহারের পরামর্শ দেন। রবিউল বীজ ভান্ডার থেকে ওই বিষ কিনে পাটের জমিতে স্প্রে করেন তিনি। নির্মল চন্দ্র রায়ের অভিযোগ বিষ প্রয়োগের ২ ঘন্টার মধ্যে পাটের জমিতে থাকা সমস্ত পাট পুড়ে গেলেও ভাদালি ঘাসের কোন ক্ষতি হয়নি। ঘাসের বদলে পুড়েছে পাট। পরবর্তীতে দোকানদারের সাথে যোগাযোগ করলেও তিনি পাটের জমিতে দেখতে আসেনি। বরং আমাকে বিভিন্নভাবে হুমকি দিচ্ছেন। এই অসাধু ব্যবসায়ির শাস্তির দাবি করছি।

নীলফামারী উপজেলা কৃষি অফিসার আতিক হাসান কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি জানান, ভুক্তভোগী কৃষক যদি আমাদের অফিসে অভিযোগ করে তাহলে বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

তবে রবিউল বীজ ভান্ডারের স্বত্বাধিকারী রবিউল ইসলাম জানিয়েছেন মিমপেক্স কোম্পানির আগাছা নাশক কিউলেপ বিষ প্রয়োগ করে ইতি পূর্বে ফসলের কোনো ক্ষতির অভিযোগ পাওয়া যাইনি। বিষ প্রয়োগের ক্ষেত্রে কোনো অনিয়ম থাকতে পারে বলে ধারনা করছেন তিনি।

 

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...