আজ ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

বেলাবতে যথাযথ মর্যাদা ও ভাব-গম্ভীর্যের মধ্য দিয়ে পালিত হয়েছে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী(সঃ)

আরিফুল ইসলাম—

বেলাব উপজেলার আমলাব বাজার জামে মসজিদের উদ্যোগে প্রতিবারের ন্যায় এবারও প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এর আগমন উপলক্ষে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী(সঃ) পালিত হয়েছে।

দিবসটি উৎযাপন উপলক্ষে বেলাব উপজেলার আমলাব জামে মসজিদে পবিত্র জুম্মার নামাজ শেষে নবী প্রেমিকদের একটি জুসনে জুলুস(আনন্দ মিছিল) বের হয়ে আমলাব ও বেলাব ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে। এসময় নবীপ্রেমিকদের “মারহাবা ইয়া রাসূল্লাহ মারহাবা ইয়া হাবিবাল্লাহ” ধ্বনীতে মুখরিত হয় এলাকা। আনন্দ মিছিলটি মসজিদে এসে শেষ হয়।

পরে মসজিদ কমিটির সভাপতি শাজাহান প্রধান (তায়েব) উদ্দিন-এর সভাপতিত্বে প্রিয় নবীর জীবনী ও ঈদে মিলাদুন্নবীর তাৎপর্য নিয়ে বক্তব্য রাখেন, আমলাব জামে মসজিদের খতিব এম এ. ক্বারী নজরুল ইসলাম আল-ক্বাদরী, মসজিদ কমিটির সভাপতি শাজাহান প্রধান তায়েব উদ্দিন, নরসিংদী পেশওয়ারী দরবার শরিফের খলিফা মাওলানা বজলুর রহমান জয়নগরী, মোঃ তামজিদ রেজা প্রমুখ।


উল্লেখ যে, ১২ রবিউল আওয়াল সোমবারে মা আমিনার ঘর আলোকিত করে আগমণ করেন বিশ্ব মানবতার মুক্তির দূত, আখেরী জামানার সর্বশেষ নবী হযরত মুহাম্মদ(সঃ)।

সেদিন রহমতের নবীর আগমনে পৃথিবীর আকাশ ও বাতাসে আহলান সাহলান, মারহাবা ধ্বনিতে মুখরিত হয়েছিলো।

বায়হাকি ও দালায়েলুন নবুয়ত কিতাবে উল্লেখ রয়েছে যে, নবীজির মা হজরত আমিনা বলেন, ‘তাঁর আগমনের পরমুহুর্তে একটা নুর প্রকাশিত হলো। সে আলোয় পূর্ব ও পশ্চিম প্রান্তের সবকিছু আলোকিত হয়ে যায়। এ আলোয় সিরিয়ার শাহি মহল আমি দেখতে পাই।’

মানবতার মুক্তি নিয়ে পৃথিবীতে রবিউল আওয়াল মাসে আগমন করেছিল আসমান ও জমিনের সকল মাখলুকের পথপ্রদর্শক, মক্কার কুরাইশ বংশের আলোর খনি হযরত মুহাম্মদ(সঃ)।

যার জন্য এ মাসটি নবী প্রেমিকদের নিকট একটি ঈদের মাস অর্থাৎ খুশির মাস।

আর তাই এ রবিউল আউয়াল মাসের বিভিন্ন দিনে বিভিন্ন রকম নফল ইবাদতে মগ্ন থাকে নবী প্রেমিকরা।

তারই ধারাবাহিকতায় গতকাল বাদ জুম্মা হতে আমলাব জামে মসজিদের উদ্যোগে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী(সঃ) পালিত হয়েছে।

এসময় নবীজির শুভাগমনের দিন একটি বিশেষ দিন উল্লেখ করে বক্তারা আরো বলেন, এ দিনটি একজন ইমানদারের জন্য প্রিয় এবং খুশির দিন। এ দিনে দুজাহানের প্রিয় নবী মানবতার বার্তা নিয়ে পৃথিবীতে এসেছেন মুক্তির দূত হিসেবে। এছাড়াও ধর্মীয় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন বক্তারা।

পরে মিলাদ শেষে মুসুল্লিদের নিয়ে সমগ্র মানব জাতির উদ্দেশ্যে দোয়া করা হয়।

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...