আজ ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিবপুরে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যার প্ররোচনা দেননি শিক্ষিকা,তদন্ত প্রতিবেদন জমা

মোমেন খান:
ইঁদুরের বিষপানে নিহত শিবপুর পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী আইনুন তাজরি প্রভাকে শাসন করলেও আত্মহত্যার প্ররোচনায় শিক্ষিকা নারগিস সুলতানা কনিকার সংশ্লিষ্টতা পায়নি বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের তদন্তকারী কর্মকর্তা।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) জিনিয়া জিন্নাতের নিকট ৪৬ পৃষ্ঠার একটি তদন্ত প্রতিবেদন জামা দেয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আলতাফ হোসেন।

তিনি জানান, প্রতিবেদনে বিদ্যালয়ের ৩০ জন শিক্ষক, ১৯ জন শিক্ষার্থী, দুজন অভিভাবক, প্রভার মা, কয়েকজন প্রতিবেশী ও পুলিশের সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্ত শিক্ষিকা নারগিস সুলতানা কনিকা স্কুল ছাত্রী প্রভাকে ক্লাসরুমে কোনো ধরনের শাসন করেনি। বিদ্যালয়ের সিঁড়ির মধ্যে প্রভাকে শাসন করেন বলেও প্রতিবেদনে উল্লেখ করেন তিনি।

গত বৃহস্পতিবার (১ সেপ্টেম্বর) শিবপুর সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের নির্ধারিত পোশাকের সঙ্গে টাইস পরে বিদ্যালয়ে গেলে অষ্টম শ্রেণীর শিক্ষার্থী আইনুন তাজরি প্রভাকে শিক্ষক নার্গিস সুলতানা কনিকা অপমান ও মারধর করেন। এঘটনায় বিকেলে বিদ্যালয় থেকে বের হয়ে ওই শিক্ষার্থী ইদুর মারার বিষ খেয়ে শিবপুর মডেল থানায় গিয়ে অভিযোগ করে অসুস্থ হয়ে যায়।

সেখান থেকে হাসপাতালে নিলে প্রভাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

ওই রাতেই বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ অভিযুক্ত শিক্ষক নার্গিস সুলতানা কনিকাকে সাময়িক বরখাস্ত করে।

পরদিন শুক্রবার অভিযুক্ত শিক্ষিকা কনিকার বিরুদ্ধে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে শিবপুর মডেল থানার উপপরিদর্শক আফজাল মিয়া বাদী হয়ে একটি মামলা দায়ের করেন।

ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত শিক্ষিকা পলাতক রয়েছেন।

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...