আজ ১১ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ২৫শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

সাপ আতঙ্ক! নিজের সন্তানকে সাপ ভেবে ডোবায় ফেলে হত্যা করলো মা

নিজস্ব প্রতিবেদক :

নবজাতক সন্তানের বয়স মাত্র ২৪ দিন। নবজাতকের নাম ইউসুফ মিয়া। সাপ ভেবে সেই নবজাতককেই ডোবায় ফেলে হত্যা করলো গর্ভধারিনী মা তানিয়া বেগম (২২)।

লোমহর্ষক এই ঘটনায় নবজাতক সন্তানকে হত্যার দায়ে গ্রেফতার করেছে অভিযুক্ত মা তানিয়াকে।

ঘটনাটি ঘটেছে আজ মঙ্গলবার সকালে নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা ইউনিয়নের কেন্দুয়াব গ্রামে।

নিহত নবজাতক ইউসুফ কেন্দুয়াব গ্রামের মহসিন মিয়ার ছেলে।

ঘটনার পর পুলিশ নিহত ওই নবজাতকের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়।

একই সাথে নবজাতকের মা তানিয়া বেগম (২২) কে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে।

পুলিশ ও নিহতের পরিবার জানায়, তানিয়া বেগম গর্ভধারণের পর থেকে পেটে সাপ রয়েছে বলে আতঙ্কে থাকতো। পরে গর্ভধারণের ৭ মাসের মাথায় আলট্রাসনোগ্রাম করে পুত্র সন্তানের কথা জানে। কিন্তু তার পরেও তার সাপ আতঙ্ক কাটেনি।

গত ২৪ দিন আগে একটি হাসপাতালে তানিয়া পুত্র সন্তান জন্ম দেয়। জন্মের পর থেকে নিজের সন্তানকেই সাপ সাপ বলে সর্বদা আতঙ্কিত থাকতো তানিয়া।

সর্বশেষ আজ মঙ্গলবার সকালে একই ভাবে আতঙ্কিত হয়ে নিজের নবজাতক সন্তাকে বাড়ির পাশে একটি ডোবায় ফেলে দেয়। পরে বাড়িতে এসে স্বজনদের সাপ ফেলে দিয়ে আসছে বলে জানায়।

এরপর স্বজনার ডোবা থেকে নবজাতককে উদ্ধার করে নরসিংদী সদর হাসপাতালে নিলে সেখানকার ডাক্তার তার মৃত্যু হয়েছে বলে জানায়।

তানিয়া বেগমের স্বামী মহসিন মিয়া জানায়, গর্ভধারণের পর থেকে হঠাৎ করে তানিয়া তার পেটে সাপ রয়েছে বলে আতঙ্কিত থাকতো। পরে সাত মাসের মাথায় হাসপাতালে আলট্রাসনোগ্রাম করে পুত্র সন্তানের বিষয় জানি। গত ২৪ দিন আগে সিজারের মাধ্যমে পুত্র সন্তানের জন্ম দেয় তানিয়া। এরপরও সে নিজের সন্তাকে সাপ সাপ বলে আতঙ্কিত থাকতো। তার মানুষিক সমস্যায় অনেক বার ডাক্তারও দেখিয়েছি। ডাক্তার বলেছিল সুস্থ্য হতে কিছু দিন সময় লাগবে। কিন্তু সে যে এরকম কাজ করবে তা ভাবিনি।

পলাশ থানার ওসি মোহাম্মদ ইলিয়াছ জানায়,ঘটনার পর নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে তানিয়া বেগমকে গ্রেফতার করা

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...