আজ ৬ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

নরসিংদীত ১৬ তম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস পালিত

নরসিংদী প্রতিনিধিঃ 

নরসিংদীতে ১৬ তম বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস পালিত হয়েছে। রবিবার (২ এপ্রিল) বিশ্ব অটিজম উপলক্ষে সকাল ১১ টায় জেলা প্রশাসক সম্মেলন কক্ষে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

নরসিংদী জেলা প্রশাসন, জেলা সমাজসেবা কার্যালয় এবং প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র এর আয়োজনে “রূপান্তরের অভিযাত্রায় সবার জন্য নিউরোবান্ধব অন্তর্ভুক্তিমূলক বিশ্ব গঠন” এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক আবু নঈম মোহাম্মদ মারুফ খান।

জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপ পরিচালক মাসুদুল হাসান তাপসের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মোস্তফা মনোয়ার, নরসিংদী সরকারী কলেজের সাবেক অধ‍্যক্ষ প্রফেসর মোহাম্মদ আলী, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের মেডিকেল অফিসার সঞ্জয় কুমার দ্ত্ত ও সমাজসেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক নঈম জাহাঙ্গীর।

আলোচনা সভায় বক্তব‍্য রাখেন, পাপড়ির নির্বাহী পরিচালক আব্দুল বাছেদ, সুইড বুদ্ধি প্রতিবন্ধী স্কুলের প্রধান শিক্ষক জসিম উদ্দিন সরকার, সমাজকর্মী মতিউর রহমান জাকিরসহ অন্যরা।

দিবসটির তাৎপর্য তুলে ধরে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, উপপরিচালক, মো: মাসুদুল হাসান তাপস, তিনি বলেন, বক্তারা বলেন, অটিজমে আক্রান্ত শিশু ও বয়স্কদের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে সহায়তার প্রয়োজনীয়তাকে তুলে ধরতে জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদ ২০০৭ সালে ২ এপ্রিলকে ‘বিশ্ব অটিজম সচেতনতা দিবস’ হিসেবে পালনের সর্বসম্মত সিদ্ধান্ত গ্রহণের পর থেকে প্রতি বছর দিবসটি পালন করা হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা ও স্কুল সাইকোলজিস্ট সায়মা ওয়াজেদ পুতুলের নিরলস প্রচেষ্টায় জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে অটিজম বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি হয়েছে। তিনি ২০০৭ সালে এ বিষয়ে দেশে কাজ শুরু করেন। সায়মা ওয়াজেদ এ অবহেলিত জনস্বাস্থ্য ইস্যুতে তার বিরাট অবদানের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বীকৃতি পেয়েছেন। সেই সাথে আমাদের সকলকো মানবিক হতে হবে।

অটিজম শিশুর মা ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্য করে প্রধান অতিথি আবু নঈম মোহাম্মদ মারুফ খান বলেন, একজন অটিজম শিশুর মা হিসেবে আপনাদের জীবন খুবই কঠিন সময়ের মধ্যে কাটে। সেটা আমরা অনুধাপন করতে পারি। আমরা আপনাদের পাশে আছি এবং নরসিংদীতে এই শিশুদের জন্য একটি স্কুল করার জন্য চলমান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি, যা নাকি চলতি বছরেই দৃশ্যমান কিছু দেখতে পাবেন। আমি আশা করবো নরসিংদীর সুশীল সমাজ ও ব্যবসায়ীগণও এ কাজে এগিয়ে আসবেন।

তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল এই অটিজম শিশুদের নিয়ে সারা বিশ্বে কাজ করছে, তারই ধারাবাহিকতায় এর সুফল বাংলাদেশের অটিজম শিশুরা পাবে।

আলোচনা শেষে সমাজসেবা অধিদপ্তরের আওতায় ক্যান্সার ও কিডনী আক্রান্ত রোগীদের আর্থিক অনুদানে চেক প্রদান করা হয়।
#

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...