আজ ১লা শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ১৬ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

কাপ্তাই হ্রদে শেখ রাসেল স্মৃতি নৌকা বাইচ

সাকিব আলম মামুন 

হেমন্তের বিকালে কাপ্তাই হ্রদে স্বচ্ছ নীল জলরাশিতে অনুষ্ঠিত হলো আবহমান গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা। নৌকা বাইচের নৌকার বৈঠার ছলাৎ ছলাৎ শব্দ আর মাঝি মাল্লাদের নাচ গানে মুখরিত হয়ে উঠে কাপ্তাই হ্রদ।

বুধবার (১৮ অক্টোবর) বিকেলে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে শহরের শহীদ মিনার সংলগ্ন কাপ্তাই হ্রদে শেখ রাসেল স্মৃতি এই নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

আয়োজকরা জানান, নৌকা বাইচে চারটি বিভাগে প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। এতে দুইজনের মহিলা ডিঙ্গি নৌকায় প্রথম স্থান অর্জন করে শর্মিলা ত্রিপুরার দল। দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে শেফালী চাকমার দল। তৃতীয় স্থান অর্জন করে পদ্মা দেবীর দল। পুরুষ দুই জনের সাম্পানে প্রথম স্থান অর্জন করে মো. জামাল উদ্দিনের দল। দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে জলকান্তি ত্রিপুরার দল ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে মো. জিহাদের দল।

এছাড়া ১৫জনের মহিলা বড় নৌকায় প্রথম হয় সুমিতার ত্রিপুরার দল, দ্বিতীয় হয় আলো ত্রিপুরার দল ও তৃতীয় হয়েছে চিকনা ত্রিপুরার দল। ২১ জনের পুরুষ বড় নৌকায় প্রথম স্থান অর্জন করে চিরমনি ত্রিপুরার দল, দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে শংকর ত্রিপুরার দল ও তৃতীয় স্থান অর্জন করে প্রশান্তি ত্রিপুরার দল। অনুষ্ঠানে বড় নৌকায় প্রথম স্থানকারী দলকে ৫০ হাজার টাকা, দ্বিতীয় স্থানকারী দলকে ৩৫ হাজার ও তৃতীয় স্থানকারী দলকে ২৫ হাজার টাকা পুরস্কার দেয়া হয়।

শিক্ষক লিটন দেবের সঞ্চালনায় এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন নৌকা বাইচ আহ্বায়ক কমিটির সদস্য সচিব হাজি মুছা মাতব্বর। প্রতিযোগিতা শেষে জেলা প্রশাসক মোশারফ হোসেন খানের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে পুরস্কার তুলে দেন খাদ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি দীপংকর তালুকদার এমপি। এতে গেস্ট অব অনার ছিলেন উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান সুপ্রদীপ চাকমা। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অংসুই প্রু চৌধুরী, রাঙামাটি পৌরসভার মেয়র আকবর হোসেন চৌধুরীসহ বিভিন্ন সরকারি অফিসের কর্মকর্তাবৃন্দ।

প্রধান অতিথি দীপংকর তালুকদার এমপি বলেন, নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা দেখে খুবই মুগ্ধ হয়েছি। বহু মানুষ নৌকা বাইচ দেখতে এসেছেন। গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নৌকা বাইচ দেখে সত্যি খুব আনন্দিত হয়েছি। শেখ রাসেলের জন্মবার্ষিকীতে এমন সম্প্রীতির আয়োজনে আয়োজক কমিটিকে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন তিনি।

এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এ ক্যাটাগরির আরো নিউজ...